সিপিএ মার্কেটিং কি?: সিপিএ মার্কেটিং করে টাকা আয়

হ্যালো ফেন্ডস,আশা করি সকলেই ভালো আছেন। আবারো নতুন এজটি আর্টিকেল নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। আজ আমরা কথা বলবো সিপিএ মার্কেটিং কি, কিভাবে সিপিএ মার্কেটিং করা হয়,সিপিএ মার্কেটিং করে টাকা আয় ইত্যাদি বিষয় নিয়ে। আশা করি সম্পূর্ন লেখাটি পড়বেন।

সিপিএ মার্কেটিং

সিপিএ মার্কেটিং কি (What is CPA Marketing?)

আমরা প্রায় সকলেই সিপিএ এবং মার্কেটিং কে একই মনে করি কিন্তু আসলে সিপিএ এবং মার্কেটিং দুটি আলাদা আলাদা বিষয়।

সিপিএ (CPA) হলো একটি সংক্ষিপ্ত রুপ যার পূর্নরুপ হলো Cost Per Active. যার অর্থ হলো আপনি প্রতিটি কাজের জন্য টাকা পাবেন। এখানে বিভিন্ন ধরনের কাজ হতে পারে যেমনঃ রেজিস্টার করা,নিউজলেটার সাবমিট করা, ক্লিক করা, সেল করা ইত্যাদি। এগুলাই হচ্ছে Action,এই প্রতিটিই হচ্ছে কাজ যার প্রতিটি কাজের জন্য আপনি একটি করে পেমেন্ট পাবেন।

এটিই হচ্ছে সিপিএ (CPA) পূর্নরুপ Cost Per Action.

এবার আমাদের মনে প্রশ্ন আসতে পারে CPA মানে যদি Cost Per Action হয় তাহলে মার্কেটিং মানে কি?

এখানে মার্কেটিং মানে আমাদের কাছে দুটি বিষয় হতে পারে যেমনঃ
১/ আমরা যে পণ্য নিয়ে কাজ করবো সেই পণ্যের value মার্কেটে তৈরি করা।
২/ ঐ পণ্য রিলেটেড কাস্টমারের সাথে ভালো সম্পর্ক তৈরি করা।

আসুন এ দুটি বিষয় নিয়ে একটু বিস্তারিত জেনে নেই।

মার্কেটে পণ্যের ভ্যালু তৈরি করা

ধরুন আমি বা আপনি একজন সাদারণ ক্রেতা। আমরা যখন কোনো কম্পানির পণ্য কিনতে যাবো তখন আমরা একাধিক বিষয় নিয়ে ভেবে তারপর ঐ পণ্যটি কিনবো। যেমনঃ

১/ এই পণ্যটি কেমন?
২/ এটি কিনে আমার লাভ কি?
৩/ এর আগে যারা পণ্যটি কিনেছিলো তারা কি কি সুবিধা পেয়েছিলো?
৪/ আমি আপনার থেকেই কেনো পণ্যটি কিনবো?
ইত্যাদি।

আপনি যদি এই প্রশ্ন গুলোর বিষয়ে আপনার কাস্টমারদের ভালো করে বুঝাতে পারেন তাহলে তারা আপনার থেকে পণ্যটি কিনবে।

এটিই হচ্ছে পণ্যের value মার্কেটে তৈরি করা।

২/ Relation Build Up করা

ধরুন আমরা এই সাইট থেকে মেয়েদের পোশাক বিক্রি করি। মনে করি আমাদের সাইটে দিনে ১০০ জন ভিজিটর আসে যাদের জন্য ১০০ জনই ছেলে। তাহলে কিন্তু আমার একটা সেলও আসবে না কিন্তু ১০০ জনই যদি মেয়ে হয় তাহলে সেখান থেকে আমার অনেক গুলো সেল আসবে।

তাই আপনি যে পণ্যটি নিয়ে কাজ করবেন সেই পণ্য রিলেটেড কাস্টমারের সাথে Relation তৈরি করতে হবে।

এটিই হচ্ছে মার্কেটিং।

এখন আপনাদের একটি খুশির খবর জানাচ্ছি যে এখানে আপনি প্রতিটি কাজের জন্য টাকা পাবেন তবে আপনার নিজেকে কোনো কাজ করতে হবে না।

ধরুণ একটি একটি বীমা কম্পানিতে চাকরি করেন। সেখান থেকে বলা হলো যে আমি যদি ২০ টি নতুন বীমা করাতে পারেন তাহলে আপনাকে ২০০০ টাকা বেতন দেওয়া হবে। তাহলে আপনি কি নিজে ২০ টি বীমা করবেন নাকি ২০ জন লোক দিয়ে করাবেন?

বা কেউ আপনাকে বললো আপনি যদি ৫ লিটার তেল বিক্রি করে দিতে পারেন তাহলে আপনি ১০০ টাকা পাবেন। এক্ষেত্রে আপনি নিজেই কি ৫ লিটার তেল কিনবেন নাকি অন্য জনকে দিয়ে কিনাবেন?

অবশ্যই আপনি অন্য লোকদের দিয়ে বীমা করাবেন বা তেল কেনাবেন।

সিপিএ মার্কেটিং এর ক্ষেত্রেও আপনাকে যে কাজটি দেওয়া হবে সে কাজটি আমরা নিজে কেউ না করে সেই কাজটি অন্য জনকে দিয়ে করাবো এবং তাদের কাজের বিনিময়ে আমরা টাকা পাবো।

আশা করি সিপিএ মার্কেটিং কি এ বিষয়টি নিয়ে পূর্ণ ধারণা পেয়ে গেছেন।

সিপিএ মার্কেটিং কিভাবে কাজ করে?

ধরুন একটি কম্পানি আছে যার নাম হলো গ্রামীণফোন। এখন তারা একটি নতুন এপ তৈরি করলো এবং তারা চায় এই এপটি মানুষ ডাউনলোড করুক। এখন তারা যদি নিজেরা মার্কেটিং করে এপ ডাউনলোড করাতে যায় তাহলে তাদের অনেক সময় এবং টাকার অপচয় হবে।

তাই তারা অন্য একটি কম্পানির সাথে ডিল করবে যে সেই কম্পানি যদি গ্রামীণফোনের এপ ডাউনলোড করাতে পারে তাহলে প্রতিটি ডাউনলোড করানোর জন্য ২.৫ টাকা করে দিবে।

এই ২য় নাম্বার কম্পানিটি হলো একটি সিপিএ নেটওয়ার্ক। এই কাজটি নিয়ে তারা নিজেরাও কাজটি করবে না।

১ম কম্পানির থেকে কাজটি নিয়ে তারা ৩য় পক্ষকে কাজটি দিবে এবং তারা প্রতিটি ডাউনলোডের জন্য ২ টাকা করে দিবে।
এই ৩য় পক্ষটি হলো আমরা মার্কেটাররা।

এই সার্কেলে সকলেরই লাভ হয়।

অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে আমরা মার্কেটারা কেন ১ম পক্ষ বা গ্রামীণফোন বা কম্পানির থেকে সরাসরি কাজ নিতে পারবো কিনা?

আসলে কোনো কম্পানি একক কাউকে এই কাজ গুলো দেয় না। তারা একটি টিম কে কাজ দেয়।

সিপিএ মার্কেটিং কেন সেরা

সিপিএ মার্কেটিং কেন সেরা এটি বলার আগে আমি আপনাদের বলতে চাই যে একজন ভালো ফ্রিল্যান্সার হতে চাইলে আমাদের মাঝে কি কি গুণ থাকা প্রয়োজন। এর জন্য আপনার দুটি জিনিস দরকার একটি হলো আপনার কাছে অনেক সময় থাকতে হবে এবং অপরটি হলো আপনার ধৈর্য থাকতে হবে।

এই দুটির মাঝে যে কোনো একটি না থাকলে আপনও ফ্রিল্যান্সার হতে পারবেন না।

ধরুন আপনি কাজ শেখার জন্য ১ বছর সময় দিলেন যে আপনি একটানা ১ বছর কাজ শিখবেন যার বিনিময়ে আপনি ১ টাকাও চান না।

অনলাইনের করার মতো অনেক গুলো কাজ আছে। আপনি সেগুলো সময় নিয়ে শিখতে পারবেন।

ধরুন আপনি ৩ মাস সময় নিয়ে কোনো একটি কাজ শিখলেন এবং পরের ৩ মাস ইন্টার্নি করলেন এবং বাকি ৬ মাস আপনার শেখা জ্ঞান টুকু বিভিন্ন প্রজেক্টে প্রয়োগ করলেন।

১ বছর পর আপনি তাহলে কি চাইবেন?

এক্ষেত্রে আমাদের উত্তর হবে যে আমরা টাকা বা ডলার চাই এককথায় এই কাজ শেখা থেকে আমরা আউটপুট চাই। কিন্তু আপনি যদি টাকা না পান তাহলে আপনি কি করবেন?

তাহলে আপনার মধ্যে হতাশা কাজ করবে।

তখন কোটি টাকা দিয়েও আপনাকে বিশ্বাস করানো যাবে না যে ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয় করা যায়। কারণ আপনি জীবনের মূল্যবান সময় বিনিয়োগ করেও কিছু পান নি।

আবার ধরেন আপনি যদি একটি কাজ শেখার পাশাপাশি তা থেকে কোনো ইনকাম সোর্স খুঁজেন এবং তা থেকে ১ ডলার আয় করতে পারলেও আপনার কাজের স্পিড আরো বেড়ে যাবে। আপনি যখন মাসে ১০০ ডলার আয় করা শুরু করবেন তখন আপনার মাঝে বিশ্বাস জন্মাবে যে আপনি যদি ভালো করে কাজ শিখতে পারেন তাহলে আপনার পক্ষে ১০০০ ডলার ইনকাম করা কোনো ব্যাপারই না।

এখন আপনি ভাবুন আপনি কি আগের উদাহরণের মতো কাজ করবেন নাকি পরের উদাহরণের মতো কাজ করবেন?

১ বছর কাজ শিখে কিছু না পাওয়ার থেকে কিছুদিন কাজ শিখে তা থেকে ইনকাম করতে শিখেন তাহলে সেটাই আপনার জন্য ভালো হবে।

“সিপিএ মার্কেটিং হলো এমন একটি সেরা কাজ যেটির সুবিধা হলো আপনি কাজ শেখার পাশাপাশি তা থেকে কিছু কিছু করে ইনকামও করতে পারবেন।

এবার যে কথাটি বলবো সেটি হলো “সিপিএ মার্কেটিং থেকে আপনি বেশি ROI পাবেন। আরওআই হলো রিটার্ন অফ ইনভেস্টমেন্ট।অর্থাৎ আপনি যে পরিমাণ টাকা বিনিয়োগ করবেন তার থেকে বেশি পরিমাণ টাকা লাভ করতে পারবেন।

আরেকটি সুবিধার বিষয় হলো “সময় সাশ্রয় ”

আপনি একজন ছাত্র,চাকরিজীবী যাই হোন না কেন আপনি এই কাজটি করতে পারবেন। দিনের ২৪ ঘন্টা থেকে মাত্র ১ ঘন্টা সময় দিলেও আপনি এর থেকে ভালো টাকা আয় করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

সিপিএ মার্কেটিং কয় প্রকার

সিপিএ মার্কেটিং মূলত ৪ প্রকার যেমনঃ

১/ CPC = Cost Per Click
২/ CPL = Cost Per Lead
৩/ CPS = Cost Per Sell
৪/ RV = Revenue Share

সিপিএ মার্কেটিং করতে কি কি দরকার

CPA মার্কেটিং করতে আমাদের চারটি জিনিস প্রয়োজন পড়বে। যেমনঃ

১/ অফার
২/ ল্যান্ডিং পেইজ
৩/ ট্রাফিক
৪/ ট্র্যাক

সিপিএ মার্কেটং এর কাজ কোথায় পাবো

এতক্ষন আমরা আলোচনা করলাম সিপিএ মার্কেটিং কি | সিপিএ মার্কেটিং কেন সেরা ইত্যাদি বিষয় নিয়ে। এখন আমরা কথা বলবো আমরা এই কাজ গুলো কিভাবে পাবো বা cpa মার্কেটিং এর কাজ গুলো আমরা কোথায় পাবো। আসুন কিছু সাইট বিষয়ে জেনে নেই যেগুলো থেকে আমরা CPA মার্কেটিং এর কাজ করতে পারবো।

১/ adworkmedia.com
২/ cpalead.com
৩/ cpagrip.com
৪/ ad4date.com

এছাড়াও আরো কিছু সাইট আছে যেগুলোতে কাজ করতে পারবেন।

এই সাইট গুলোতে গিয়ে আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট খুলে পছন্দ মতো কাজ খুঁজে কাজ করতে পারবেন।

তবে কাজ গুলো করার জন্য আপনাকে কিছু সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। যেমনঃ

১/ আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে অনেক গুলো কাজ পাবেন কিন্তু বেশি লাভের আশায় আপনি নিজেই কাজ গুলো করতে যাবেন না। আপনি যদি ঐ কাজ গুলো নিজেই করেন তাহলে সাইট সেটা ধরে ফেলবে এবং আপনাকে ব্যান করে দিবে।

২/ কোনো সাইটে কাজ করার আগে সেই সাইটে বিষয়ে সব কিছু জেনে নিবেন যেমনঃ বাংলাদেশ থেকে টাকা তোলা যায় কিনা এসব বিষয়ে সব জেনে নিবেন।

CPA মার্কেটিং এর কাজ গুলো ২টি উপায়ে প্রমোট করা যায়। যেমন

১/ ফ্রি মেথড।

২/ পেইড মেথড।

ফ্রি মেথড

এই পদ্ধতিতে আপনার অফার গুলো প্রমোট করতে কোনো টাকা খরচ করতে হবে না তবে আপনাকে অনেক কষ্ট করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি কনটেন্ট মার্কেটিং, ইমেইল মার্কেটিং,ওয়েবসাইট মার্কেটিং,সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং,ইউটিউব মার্কেটিং, এর মাধ্যমে আপনার অফার গুলো প্রমোট করতে পারবেন।

আপনি যদি ভালো ভাবে কাজ করতে পারেন তাহলে আপনি এগুলো ফ্রি মেথডের মাধ্যমেই অনেক বেশি ট্রাফিক পাবেন এবং বেশি টাকা আয় করতে পারবেন।

পেইড মেথড

এই মাধ্যমে অফার গুলো প্রমোট করতে টাকার প্রয়োজন হয়। টাকা দিয়ে প্রমোট করতে হয় বলে এক্ষেত্রে আপনার কোনো সময় অপচয় হয় না। সাদারণত ফেসবুক এড ক্যাম্পেইন এবং গুগল এডওয়ার্ড এর মাধ্যমে কাজ করা হয়ে থাকে।

সিপিএ মার্কেটিং করে টাকা আয়

আপনি যদি অনলাইন থেকে আয় করার সেরা উপায় খুঁজে থাকেন তাহলে সিপিএ মার্কেটিং হলো আপনার জন্য সেরা একটি উপায়। উপরে আমি যেসব সাইটের কথা বলেছি আপনি সেগুলো সাইটে কাজ করে মাসে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

সবশেষ কথা,

সিপিএ মার্কেটিং হলো অন্যের দেওয়া অফার গুলো নিজে প্রমোট করিয়ে অন্যকে দিয়ে কাজ করিয়ে টাকা আয় করা। আপনি এই কাজ গুলো করে আপনি মাসে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন।

এই পোস্টে আমি সিপিএ মার্কেটিং নিয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। আশা করি আপনি অনেক কিছু জেনেছেন।

আমার লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। এত সময় নিয়ে লেখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top